ইউটিউব করে লাখ টাকা ইনকাম করার সুযোগ

ইউটিউব করে লাখ টাকা ইনকাম করার সুযোগ

ইউটিউব থেকে আয় করার উপায়
ইউটিউব থেকে আয় করার উপায়


Youtube এমন একটা প্ল্যাটফর্ম যা ২০০৫ সালে তৈরি হয়েছিল এটি একটি ভিডিও শেয়ার করা প্ল্যাটফর্ম বর্তমানে ইন্টারনেটে যত ভিডিও শেয়ার করা প্ল্যাটফর্ম রয়েছে তাদের মধ্যে এটি একটি খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে । তবে ইউটিউব একটি চ্যানেল খোলা খুবই সহজ কিন্তু চ্যানেল খুলে ইনকাম করা একটু কঠিন হতে পারে কারণ এ প্লাটফর্মে দিনের পর দিন কনফিউশন বেড়ে চলছে ।

আমরা আপনাকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ সরবরাহ করতে যাচ্ছি, যা আপনার ইউটিউব প্রশাসন দক্ষতা বাড়ানোর সাথে সাথে আপনার প্রতিষ্ঠানে আয় বাড়ানোর সাথে সাথে সাথে সহায়ক হতে পারে।

আপনি কিভাবে প্রথমে youtube চ্যানেল খুলবে জানুন 

আমি এই প্রথম একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চান তাহলে আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট প্রয়োজন হবে এর সাথে আপনার জন্য তারিখ এবং মোবাইল নাম্বার দিতে হবে তারপর আপনি চ্যানেল নাম বর্ণনা নির্ধারণ করে আপনার চ্যানেলের নাম দিতে হবে এরপরে ভিডিও আপলোড করতে লাগবে ।

আপনার যে কোন একটা ক্যাটাগরি উপর ভিডিও তৈরি করতে হবে । যদি তা না করে আপনার ভিডিও কোন ভাবে ভাইরাল হবে না । আপনার ভিডিও আপনি বারবার দেখবেন না ভিডিওটি আপনাদের বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন এটি ভালো হয়। আপনি যত বেশি আপনার বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করবেন তত বেশি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে ।

আপনি কি টানা একমাস প্রত্যেক দিন একটি ভিডিও আপলোড আপলোড করতে হবে প্রথম প্রথম আপনার ভিডিওটি অল্প ভিউজ থাকবে ।

প্রত্যেকদিন এইভাবে আপনার চ্যানেলের প্রায় ১০০ টি ভিডিও আপলোড করার পর ধীরে ধীরে আপনার চ্যানেলের ডিউস বাড়তে থাকবে এভাবে আপনার চ্যানেলে ভিডিও ভাইরাল হয়ে যাবে ।

youtube চ্যানেল খোলার পর কিভাবে কপিরাইটের হাত থেকে বাঁচবেন 

আপনার youtube চ্যানেলে কোনরকম কপিরাইট ভিডিও আপলোড করা যাবেনা না হলে আপনার চ্যানেল সাসপেন্ড হতে পারে

কোন কবিরের ভিডিও ৫ সেকেন্ডের বেশি আপলোড করতে পারবেন না ইউটিউবে নাহলে কবিরাট আসবে আর আপনার কোন ভিডিওতে যদি সাউন্ড বা মিউজিকের প্রয়োজন নাই তাহলে ইউটিউব থেকে ডাউনলোড করা কোন মিউজিক বা সাউন্ড ইউজ করবেন না তার জন্য ইউটিউব নতুন একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছে youtube ক্রিকেটারদের জন্য youtube অডিও লাইব্রেরী এখান থেকে যেগুলি সাউন্ড বা মিউজিক রয়েছে এগুলি যদি আপনার ভিডিওতে ব্যবহার করেন তাহলে আপনার ভিডিওতে কোনরকম কপিরাইট আসবে না ।

Video তৈরি করার পর যখন আপলোড দিবেন তার সাথে একটি থাম্বেল তৈরি করবেন আমি একটি ভালোভাবে এডিট করে তৈরি করবেন থাম্বনেল যত আপনার ভালো হবে আপনার ভিডিওতে ভিউস আসার সম্ভাবনা বাড়বে ।


আসুন জেনে নিন কিভাবে আপনি চ্যানেলটি Monetize হবে

ইউটিউবে কিছু ক্রাইটেরিয়া রয়েছে সেগুলি আপনাকে কমপ্লিট করতে হবে যেমন আপনার চ্যানেলে কোনরকম কপিরাইট ভিডিও থাকা যাবে না এবং ভিডিওগুলি আপনার হতে হবে ।

আপনার চ্যানেলে যতগুলি আপনার ভিডিও রয়েছে তার উপর কিরকম views এসেছে বা আপনার ভিডিওটি কতক্ষণ পর্যন্ত দেখেছে ইউটিউব কাউন্ট করে ইউটিউবে মনিটাইজ পেতে গেলে চার হাজার ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইব হওয়া জরুরি ।

এগুলি ছাড়া কোন ভাবে আপনার জন্য মনিটাইজ হবে না । এ ক্রাইটেরিয়া গুলি কমপ্লিট করার পর আপনাকে একটি Google AdSense একাউন্ট তৈরি করতে হবে তার সাথে আপনার চ্যানেলটি অ্যাড করতে হবে ।

এই অ্যাকাউন্টটি তে একটি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অ্যাড করতে হবে । যেখানে আপনার ইনকামের ডলার আসবে । আর এই অ্যাকাউন্টটি খোলার সময় আপনার অ্যাড্রেস টি সম্পূর্ণ ভালোভাবে দিতে হবে ।

আপনি চ্যানেল খুললেন এবং ভিডিও আপলোড করলেন এবং মনিটাইজ পেয়ে গেলেন তারপর আপনার Google AdSense একাউন্টে ১০ ডলার কমপ্লিট হলে আপনাকে সেখান থেকে একটি পোস্ট অফিসের মাধ্যমে আপনাকে একটি ভেরিফিকেশন পিন পাঠাবে এই পিনটি  আপনার Google adsense একাউন্টে দিতে হবে ।


আপনার যখন ১০০ ডলার কমপ্লিট হয়ে যাবে অটোমেটিক আপনার ব্যাংকে চলে আসবে ।

এখন সবকিছু কমপ্লিট আপনি যত বেশি ভিডিও আপলোড করবেন যে পরিমাণ views আসবে তার উপর নির্ভর করবে আপনার কতটা ইনকাম হবে। 

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার উপায় জানুন 

Author:- sanjay

🙏ধন্যবাদ, বিভিন্ন ধরনের খবর সবার আগে পেতে আমাদের পেজটাকে ফলো করুন।

Comments